জর্জটাউন ইউনিভার্সিটিতে বাংলাদেশ ডেমোক্রেসি কনফারেন্স

0
58

আমারদেশ লাইভ, নিউইয়র্ক : বিশ্বজুড়ে গণতন্ত্রের অবনতি এবং বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার পরিস্থিতির উপর জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেমিনারটি আয়োজন করেছে নিউইয়র্ক ভিত্তিক যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশি আমেরিকানদের গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘আর্চার কে ব্লাড সেন্টার ফর ডেমোক্রেসি’। ২০শে জুন ২০১৮ বুধবার দুপুর ২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কোপলি হলে আয়োজিত এই সেমিনারে ওয়াশিংটন ডিসির প্রভাবশালী থিঙ্কট্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠানগুলোর দক্ষিণ এশীয় বিশেষজ্ঞরা কথা বলেন। ‘দ্য গ্লোবাল ডিক্লাইন অফ ডেমোক্রেসি: এ বাংলাদেশ পারসপেক্টিভ’ শিরোনামে আয়োজিত এ সেমিনারে যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য অবসরপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধ ও গ্লোবাল ক্রিমিনাল জাস্টিস বিষয়ক রাষ্ট্রদূত এবং বর্তমানে হলোকাস্ট মেমোরিয়াল মিউজিয়ামের সিনিয়র ফেলো রাষ্ট্রদূত স্টিফেন জে রেপ, যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত থিঙ্কট্যাঙ্ক উড্রো উইলসন সেন্টারের সিনিয়র ফেলো এবং পাকিস্তান ও বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রদূত উইলিয়াম বি মাইলাম, আটলান্টিক কাউন্সিলের দক্ষিণ এশিয়া সেন্টারের পরিচালক ভারত গোপালস্বামী, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট মার্কিন এটর্নি হিদার গোল্ডস্মিথ, এবং উড্রো উইলসন সেন্টারের এশিয়া প্রোগ্রামের ডেপুটি ডিরেক্টর মাইকেল কুগেলম্যান মূল আলোচনায় অংশ নেন। সেমিনারে মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র ফেলো এবং বিশ্বব্যাংকের কর্মকর্তা ডক্টর তামিনা এম. চৌধুরী। এ বিষয়ে আয়োজক সংগঠন আর্চার কে. ব্লাড সেন্টার ফর ডেমোক্রেসির নির্বাহী পরিচালক কাউসার মুমিন বলেন, জাতিসংঘের ইন্টারন্যাশনাল কোভিনেন্ট অন সিভিল এন্ড পলিটিকাল রাইটস (ইউ যেন আই সি সি পি আর) জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলো কতটুকু বাস্তবায়ন করছে আমাদের সংগঠন তা মনিটর করে এবং সে বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।
এরই অংশ হিসেবে বিশ্বজুড়ে গণতন্ত্রের চলমান সংকট এবং বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক উত্তরণের ভবিষ্যৎ বিষয়ে আলোচনার জন্য আমরা এই সেমিনারের আয়োজন করেছি। কাউসার মুমিন বলেন, সেমিনারে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রসের হাউস ফরেন এফেয়ার্স কমিটির সদস্যরা নিজে কিংবা তাদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।