আরেক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ছবি তোলার পর ত্রান কেড়ে নেয়ার অভিযোগ

0
15

বরুড়া প্রতিনিধি
চট্রগ্রামের হাটহাজারীর পর এবার কুমিল্লার বরুড়ার এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ত্রান দিয়ে ছবি তোলে পরে ওই ত্রান নিজেই রেখে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার আওতাধীন শিলমুড়ি দক্ষিন ৯নং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী ফারুক। অভিযোগ উঠেছে, দেশের এই ক্লান্তিলগ্নে হত দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের ত্রান দিয়ে ছবি তুলে আবার সেই ত্রান নিজেই রেখে দিয়ে মানুষকে খালি হাত পাঠিয়ে দিয়েছেন তিনি।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগীর সূত্রে জানা যায়, গত ৬ এপ্রিল আমড়াতলী বৈচাপুকুরিয়া চেয়ারম্যান কার্য্যালয়ের সামনে সকাল ১১টায় ত্রান দেয়ার জন্য অসহায়,কর্মহীন,খেটে খাওয়া মানুষদের জড়ো করা হয়। এরপর সেখানে উপস্থিত অসহায়দের মাঝে বিতরনের জন্য চাউলের বস্তাসহ ছবি তোলেন শিলমুড়ি দক্ষিন ৯ নং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী ফারুক। বরুড়ার এক শিল্পপতির দেয়া প্রায় ৩০০ বস্তা চাউল বিতরন করে ছবি তোলেন তিনি। পরবর্তীতে তিনি ২০ বস্তা চাউল দিয়ে বাকীগুলে নিজেই রেখে দেন। ফলে ছবি তোলা শেষে বেশিরভাগ লোকই সেখান থেকে খালি হাতে ফিরে যান।
এসময় অনেকেই বলতে শোনা যায় , হাজী ফারুক নাকি নিজেকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের ভাগ্নে বলে পরিচয় দেন। যে কারনে কেউই মুখ খুলতে সাহস করে না।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হাজী ফারুক উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অসহায়,গরীবদের লিস্ট করে তাদের সহায়তার জন্য ত্রান আনে। কিন্তু এসব ত্রান সকলকে না দিয়ে কিছু গরীবদের মাঝে বিতরন করেন। আর বাকী ত্রান নিজেই বিক্রি করে দেন।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কঠোর হুশিয়ারীর পর যে বা যারা গরীব,অসহায় মানুষের সামান্য মুখের ভাত কেড়ে নেয় তাদেরকে উপযুক্ত তদন্তের মাধ্যমে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকার সাধারন মানুষ।